Connect with us

ক্রিকেট

চুরির অপরাধে রশিদ খানের সাথে ফেঁসে যেতে পারেন যেসব ক্রিকেটার

ক্রিকেট বিশ্বে রশিদ খানকে চেনেন না এমন মানুষ নেই বললেই চলে৷ ‘তরুণ’ এই আফগান লেগ স্পিনারের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যেই চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন সময়ে রশিদ খানের দেয়া বিভিন্ন সাক্ষাৎকারের তথ্য অনুযায়ী বিতর্ক উঠেছে রশিদ খানের বয়স নিয়ে। অনেকেই সরাসরি এই স্পিনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন, অতিরিক্ত সুবিধা আদায়ের জন্য স্বেচ্ছায় তিনি নিজের আসল বয়স লুকিয়েছেন।

বয়স চুরির বিতর্ক নিয়ে অতি সম্প্রতি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সিদ্ধান্ত নিয়েছে, কোনো ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে বয়স চুরির অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে দুই বছরের জন্য বোর্ডের সকল টুর্নামেন্ট থেকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে। বিসিসিআই বয়স চুরি নিয়ে তাদের নতুন সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানিয়েছে,

আমরা সকলকে অবহিত করতে চাই, যদি কোনো ক্রিকেটার এখন থেকে তার নিজের আসল বয়স লুকানোর চেষ্টা করে কিংবা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে বয়সের সনদে ঘষামাজা করে তাহলে বোর্ডের সকল টুর্নামেন্ট থেকে সেই ক্রিকেটারকে অন্তত দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হতে পারে।

বয়স বিতর্কে রশিদ খানকে নিয়ে আলোচনার টেবিল সারাক্ষণই প্রায় আলোড়িত থাকে। কিন্ত বয়স চুরির বিতর্কে শুধুমাত্র রশিদ খান নয় বরং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রাজত্ব করা আরও অনেক নামি-দামি ক্রিকেটারের নাম জড়িয়ে আছে। আমাদের আজকের আলোচনা সাজানো হয়েছে বয়স চুরির বিতর্কের সাথে জড়িয়ে যাওয়া কয়েকজন খ্যাতনামা ক্রিকেটারদের নিয়ে।

শহীদ আফ্রিদি

পাকিস্তান ক্রিকেটের বরপুত্র শহিদ আফ্রিদি সম্প্রতি বয়স বিতর্ক নিয়ে বোমা ফাটিয়েছেন তার নিজের আত্নজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ প্রকাশিত করার মাধ্যমে। আফ্রিদির আত্নজীবনীর তথ্যানুসারে অফিশিয়াল বয়সের চেয়ে তার প্রকৃত বয়সের ফারাক পাঁচ বছরের! নিজের আসল বয়স থেকে পাঁচ বছর লুকিয়েছেন সাবেক এই পাকিস্তানি অলরাউন্ডার।

শহীদ আফ্রিদি; Source: Getty Image

‘গেম চেঞ্জার’ প্রকাশ হওয়ার অনেক আগে থেকেই অবশ্য আফ্রিদির আসল বয়স নিয়ে বিতর্ক ছিল। নিজের আত্নজীবনী প্রকাশের মধ্য দিয়ে অবশেষে সেই বিতর্কের ইতি টানেন এই ক্রিকেটার। আত্নজীবনীতে আফ্রিদি লিখেছেন,

সবাই আসলে এতদিন আমার যে বয়স জেনেছেন সেটি সত্য নয়।

আফ্রিদির পাসপোর্টসহ অফিশিয়ালি সব কাগজ ও দলিলপত্রে ১ মার্চ ১৯৮০ সাল ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্ত আত্নজীবনীতে তিনি তার জন্মসাল ১৯৭৫ উল্লেখ করেছেন। সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে ১৬ বছর ২১৭ দিন বয়সে আফ্রিদির ম্যাচসেরার পুরষ্কার পাওয়ার বিরল রেকর্ডটি এখন আফগান ক্রিকেটার মুজিব উর রহমানের দখলে। তরুণ এই আফগান স্পিনার ম্যাচসেরার পুরষ্কার জিতেছেন ১৬ বছর ২৫২ দিন বয়সে। পাঁচ বছর চুরি না করলে অবসর নেয়ার সময় আফ্রিদির বয়স ৩৯ না হয়ে হতো ৪৩!

সরফরাজ খান

বয়স চুরি নিয়ে অতিসম্প্রতি বিসিসিআইয়ের নতুন আইন নিয়ে ক্রিকেটপাড়ায় আলোচনার কমতি নেই। কিন্ত স্বয়ং ভারতের উদীয়মান ক্রিকেটার সরফরাজ খানের বিরুদ্ধেই বহুদিন ধরে চলছে বয়স নিয়ে বিতর্ক৷ বর্তমানে ২১ বছর বয়সী সরফরাজকে দেখে যে কেউই ২৭ কিংবা ২৮ বছরের কোনো যুবক ভাবলে ভড়কে যাওয়ার মতো কিছু থাকবে না।

সরফরাজ খান; Source: DNA India

আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শৈলি দিয়ে ইতোমধ্যেই সকলের নজরে আসা সরফরাজের অসাধারণ প্রতিভা নিয়ে কারোর দ্বিমত নেই। কিন্ত অনেকেরই ধারণা নিজের আসল বয়স লুকিয়েছেন সরফরাজ। সনদ অনুসারে ১৯৯৭ সালে ২৭ অক্টোবরে মুম্বাইতে জন্মগ্রহণ করেছেন এই ক্রিকেটার। সনদের বয়স অনুসারে মাত্র ১৭ বছর বয়সে রঞ্জি ট্রফি খেলেছেন এই সরফরাজ। উল্লেখ্য, ভারতের ২০১৪ সালের অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ দলে খেলেছেন এই তরুণ ক্রিকেটার৷

বেন স্টোকস

বর্তমানে ইংল্যান্ড দলের অন্যতম অপরিহার্য একজন সদস্য বেন স্টোকস। কার্যকরী বোলিং এবং দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ড দলে নিজের অবস্থান পোক্ত করেছেন স্টোকস। অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্স দিয়ে ইতোমধ্যেই সমালোচকদের মন জয় করে নিয়েছেন এই অলরাউন্ডার। তবে স্টোকসের পারফরম্যান্সের চেয়েও অবিশ্বাস্য তার বয়স! বিভিন্ন সনদের তথ্যানুসারে এই ক্রিকেটারের বর্তমান বয়স ২৮ বছর।

বেন স্টোকস; Source: Cricket Australia

সনদ অনুযায়ী, ১৯৯১ সালের ৪জুনে নিউজিল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করেছেন এই ক্রিকেটার। বয়সের সাথে তার শারীরিক গঠনের মিল না থাকায় অনেকেই ধারণা করেছেন বয়স চুরি করেছেন স্টোকস। সত্যিই স্টোকস যদি বয়স চুরি করেন এবং তা প্রমাণিত হয় তাহলে ক্যারিয়ারের পরবর্তী দিনগুলোতে স্টোকসকে বেশ ঝামেলাই পোহাতে হবে৷

জেমস ফকনার

অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার জেমস ফকনারের শারীরিক গঠন এবং তার সনদের বয়সের গোঁজামিল নিয়ে ক্রিকেটাঙ্গনে কম আলোচনা হয় না! বিস্ফোরক ব্যাটিং আর কার্যকরী বোলিং নিয়ে ক্রিকেট দুনিয়ায় ফকনারের জুড়ি মেলা ভার। অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে এখনো পর্যন্ত ১ টেস্ট এবং ৬৯ ওয়ানডের সাথে খেলেছেন ২৪টি আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ম্যাচ।

জেমস ফকনার; Source: Getty Image

ফকনারের সনদ অনুসারে, ১৯৯০ সালের ২৯ এপ্রিলে তাসমানিয়ায় জন্মগ্রহণ করেছেন তিনি। সেই তথ্যানুসারে বর্তমানে তার বয়স ২৯ বছর। কিন্ত এই অজি ক্রিকেটারের শারীরিক গঠন দেখে অনেকেই মনে করেন আসল বয়স লুকিয়ে সনদে বয়স কমিয়েছেন ফকনার। তবে ফকনারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগের তেমন শক্ত কোনো প্রমাণ এখনো মেলেনি।

রশিদ খান

বয়স বিতর্কে সবচেয়ে সমালোচিত ক্রিকেটার সম্ভবত রশিদ খান। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়ে সকলের নজর কাঁড়া রশিদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পরপরই বয়স চুরির অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। আফগান এই ক্রিকেটার নিজের মুখে বয়স চুরি করার অভিযোগ সরাসরি স্বীকার না করলেও বেশকিছু সংবাদমাধ্যম রশিদের বয়স চুরি নিয়ে পোক্ত প্রমাণ দেখিয়েছে।

রশিদ খান; Source: Getty Image

রশিদের সনদের তথ্যানুযায়ী বর্তমানে তার বয়স ২০ বছর, ১৯৯৮ সালের ২০সেপ্টেম্বরে জন্মগ্রহণ করেছেন তিনি। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ইমরান খানের হাতে ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপের ট্রফি দেখে তিনি অনুপ্রাণিত হয়েছেন। কিন্ত ১৯৯৮ সালে জন্মগ্রহণ করে ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপ দেখা পুরোপুরি অসম্ভব। সাক্ষাৎকারটিতে রশিদ খান জানান,

১৯৯২ বিশ্বকাপে পাকিস্তান অধিনায়ক ইমরান খানের ট্রফি জয় দেখে আমি অনুপ্রাণিত। এটি দেখার পরপরই বিশ্বকাপে খেলতে আমার মধ্যে ইচ্ছা জাগে।

Featured Photo Credit: Cricket Australia

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More in ক্রিকেট